দুর্নীতি প্রতিরোধ ও জাতীয় রাজস্ব আয় বৃদ্ধির জন্য করণীয়

0
123

দুর্নীতি প্রতিরোধ ও জাতীয় রাজস্ব আয় বৃদ্ধির করণে করণীয় প্রস্তাবঃ

সমস্ত বেতন ও ভাতা, পেনশনারদের ভাতা, নাগরিকদের বিভিন্ন ভাতা, বিভিন্ন সেবা সমূহের টাকা পরিশোধ ইত্যাদি থেকে শুরু করে সরকারের বিভিন্ন কর পরিশোধ করতে সাধারণ নাগরিকদের সময়, পরিশ্রম ও ক্ষেত্র বিশেষে উৎকোচও দিতে হয়।

দুর্নীতি প্রতিরোধ ও জাতীয় রাজস্ব আয় বৃদ্ধির রেখচিত্র

পানি, বিদ্যুৎ, গ্যাস, টেলিফোন বিল, ভূমি কর থেকে শুরু করে সরকারের সমস্ত কর, আরোপিত জরিমানা, বেতন ভাতা থেকে শুরু করে সমস্ত ভাতা ও সেবা সমূহ অনলাইন ও মোবাইল ভিত্তিক করা হলে মানুষ ঘরে বসে কম সময়ে, কম পরিশ্রমে ও ভোগান্তি ছাড়াই সেবা সমূহ গ্রহণ করতে পারবে এবং এগুলো ঘিরে বিভিন্ন সংস্থায় যেসব দূর্নীতি হয় তাও বহুলাংশে কমে যাবে।

একটি জাতীয় ডাটা সেন্টার প্রতিষ্ঠাকরণ খুবই জরুরী হয়ে দাড়িয়েছে। দেশের প্রত্যেকটা নাগরিকের একটা NID (National Identification) Number থাকতে হবে। সমস্ত কিছু এই NID No ভিত্তিক হতে হবে। একজন নাগরিকের সমস্ত Data এই NID এর সাথে লিংকড থাকবে।

সমস্ত Bank Account এ শুধু তার নিজের NID-ই নয়, পিতা-মাতা, Spouce, সন্তানসন্তুতি ও নমিনির NIDও লিংকড করতে হবে। বিভিন্ন সেবা সমূহের টাকা পরিশোধ অনলাইন ও মোবাইল ভিত্তিক হতে হবে।

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে টাকা পরিশোধ না করলে তার কাছে সতর্কীকরণ ইমেইল ও মোবাইলে Message যাবে। তারপরও না পরিশোধ করলে জরিমানাসহ তার Bank Account থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেটে রাখতে হবে।

ভূমির/বাড়ী/ফ্লাট নামজারীর সময় ও যানবাহনের রেজিষ্টেশন এর সময়েও ব্যক্তির NID এর সাথে তা লিংকড করতে হবে এবং এক লক্ষ টাকা মূল্যের উপর যে কোন কিছু কেনাকাটাতেও তা NID সাথে লিংক করতে হবে।

National DNA Lab প্রতিষ্ঠা করে প্রত্যেক নাগরিকের DNA প্রোফাইল এর সাথে তার NID এর প্রোফাইল লিংকড করতে হবে। এতে অপরাধী সনাক্তকরণ সহজ হবে। NID এর সহিত NBR, Bank সমূহের লিংকড থাকলে কেহই অপ্রদর্শিত অর্থ রাখতে পারবে না, রাখলেও স্বয়ংক্রিয়ভাবে ট্যাক্স কেটে নেওয়া হবে ও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া সহজ হবে। এতে করে সরকারের রাজস্ব আদায় বহুগুনে বেড়ে যাবে। দেশ এগিয়ে যাবে সমৃদ্ধির পথে, গড়ে উঠবে সোনার বাংলাদেশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here